Why do people laugh or Cry |পয়সার এপিট ওপিট!

মানুষ কেন হাসে?

Why do people laugh?

১ – সহজ হিসাব আনন্দে হাসে।

২ – দুঃখ কষ্ট লুকানোর জন্য হাসে।

৩ – হাসি সংক্রামক। মানুষ অন্য কাউকে হাসতে দেখলে হাসে।

৪ – হাসির কিছু ফিলোসফি আছে। কেউ ধরুন আপনাকে জিজ্ঞেস করল ‘ কেমন আছেন?’ আপনে শুধু মাত্র হাসি দিয়ে জবাব দিতে পারবেন।

৫ – অতিরক্ত দুঃখে মানুষ হাসে। আবার অতি আনন্দে মানুষ কাঁদে !

৬ – ‘ মানুষের হাসি হয় নিষ্পাপ’ এরকম একটি প্রবাদ আছে। কথাটা ভুল। প্রতারণা করার জন্য মানুষকে হাসির আশ্রয় নিতে হয়।

৭ – আবার বিবর্তনবাদীরা হাসির ভেতরে খুঁজে পায় ডারউইনের রহস্য। অবাক হচ্ছেন? এরা বলছে শিম্পাঞ্জিকে কাতুকুতু দিলে এরা মানুষের মতই গড়াগড়ি করে। অর্থাৎ মানুষ এই স্বভাব সেখান থেকেই পেয়েছে।

৮ – মানুষকে সব থেকে বেশি সময় হাসতে হয় – আমি ভাল আছি। এই বাক্যটি বোঝানোর জন্য। যেন বেঁচে থাকার একটি শর্ত হল তোমাকে ভাল থাকতেই হবে।

৯ – স্বাস্থ্য ঠিক রাখার জন্য অনেকেই সকাল ৫ টায় সাদা জুতা পরে এক সাথে হয়ে হাসতে থাকে। বিজ্ঞান আমাদের বলছে জোর করে হলেও প্রতিদিন নিয়ম করে হাসতে। পৃথিবীটা আসলেই নিষ্ঠুর, এখানে হাসি না এলেও হাসতে বলা হয়েছে !

মানুষ কেন কাঁদে?

Why do people cry ?

১- সহজ কথা হল মানুষ কষ্ট পেলে কাঁদে।

২ – কান্না সংক্রামক। মানুষ অন্যকে কাঁদতে দেখলে কাঁদে।

৩ – কোথায় যেন পড়েছিলাম বছরে একজন পুরুষ গড়ে ৭ বার কাঁদে এবং নারীর ক্ষেত্রে এই সংখ্যাটি ৪৭।

৪ – কান্না সম্পর্কে আরো একটি মজার জরিপ আছে। সেখানে বলা হয়েছে সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ৮টা হলো কান্নাকাটির জন্য সবচেয়ে কমন সময়।

৫ – মানুষ শুধু দুঃখেই কাঁদে তা কিন্তু না, মানুষ মানুষের কাছ থেকে সিম্পেথি পাবার জন্য কাঁদতে পছন্দ করে। ‘ আমি বড় দুঃখী’ এই প্রিয় বাক্য প্রতিষ্ঠিত করার জন্য কান্নার প্রয়োজন হয়।

৬ – মানুষ কোন কিছু পাবার জন্য কান্নার আশ্রয় নেয় আবার না পেয়েও কাঁদতে থাকে।

৭ – মানুষের চোখের পানি তিন ধরনের- ক – চোখকে ধুলাবালি থেকে রক্ষা করে খ- চোখের রিফ্রেসের জন্য গ- দু:খ কষ্ট অনুভব করার কান্না

৮ – চোখের পানি লোনা বলে অনেকেই মানুষের আদিজন্ম সমুদ্র বলে ধারণা করে তবে এই তথ্যবিজ্ঞান সমর্থন করে না।

৯ – আমাদের সমাজে কান্না একান্তই ব্যাক্তিগত ব্যাপার। রাস্তা ঘাটে শপিং মলে কান্না এলে চেপে যেতে হয়।

১০ – সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের একটি কথা আমার খুব পছন্দ। ‘মেয়েরা যে কথাটি কাউকে বলতে পারে না সে কথাটি রাতে কাঁদতে কাঁদতে বলে বালিশকে’।

১১- বিজ্ঞান এখন আবেগকে স্বীকার করছে। অনেক সময় আমরা কারো সাথে কথা বলেই বুঝতে পারি মানুষটি কষ্টে আছে। এই ব্যাপারটি ঘটে মস্তিষ্কে অ্যামাগডালার কারণে।

১২ – কান্না খুব পবিত্র জিনিস এরকম একটি ভুল প্রবাদ আছে। অনেক নষ্ট ছলনার জন্য মানুষ বার বার নেকি কান্নার আশ্রয় নিয়েছে।

১৩ – মনোবিজ্ঞানীরা বলছে কাঁদলে মানুষের মন হালকা হয়। আবার অকারণে ঘন ঘন কাঁদতে নিষেধ করছে। তারা এই রোগটির নাম দিয়েছে বিষণ্ণতা রোগ। প্রায় ৩০ ভাগ মানুষ এই রোগে আক্রান্ত।

Zunayed Evan

Read more বাংলা কবিতা ,কবিতা সমগ্রকবিতাখোর,নামহীন কবিতা,মুক্তির অপেক্ষায়,ভোরের অপেক্ষায় ,জ্বির্ণতার কাব্য ,Your mind can control your life!

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

Create a free website or blog at WordPress.com.

Up ↑

%d bloggers like this: